Seo tips

কিভাবে একটি প্রফেশনাল ওয়েবসাইট তৈরি করবেন এবং কনটেন্ট রাইটিং নিয়ে দারুণ কিছু টিপ্স

আসসালামু আলাইকুম কেমন আছেন সবাই আশা করি ভাল আছেন ইনশাল্লাহ আমিও খুব ভালো আছি তাই আজকে আপনাদের মাঝে নতুন একটি আর্টিকেল নিয়ে হাজির হলাম আশা করি পুরো আর্টিকেলটি পড়লে উপকৃত হবেন আজকে আমাদের টপিক হচ্ছে ওয়েবসাইট নিয়ে এসইও টিপ্স তাহলে চলুন আমাদের মূল আলোচনায় চলে যাওয়া যাক

বর্তমানে হাজার হাজার মানুষ তাদের ক্যারিয়ার শুরু করেছে অনলাইনের ব্লগ কিংবা ইউটিউবার হাজারো মানুষ বর্তমানে অনলাইনে কাজ করতেছে তাদের মধ্যে সেরা একটি হচ্ছে ওয়েবসাইটের কাজ এখানে আপনি প্রায় লাখ টাকা পার করতে পারবেন প্রতিমাসে আপনার কাজের উপর নির্ভর করবে আপনি প্রতি মাসে কত টাকা ইনকাম করতে পারবেন একটি ব্লগ ওয়েবসাইট থেকে যদি আপনার আগ্রহ ভালো থাকে এবং আপনি ভালো কনটেন তৈরি করতে পারেন তাহলে আপনার ইনকাম নিশ্চিত প্রতিমাসে ভালো পরিমাণে একটি অ্যামাউন্ট পাবেন একটি ওয়েবসাইটের মেন্ট হচ্ছে তার কন্টাক্ট আপনার কনটেন্ট এর উপর নির্ভর করবে আপনার ওয়েবসাইটে ইনকাম এবং ভিজিটর এজন্য আপনাকে ভালোভাবে এসিও করতে হবে যাতে গুগল থেকে প্রতিদিন ভালো পরিমাণে ট্রাফিক আসে গুগল থেকে ট্রাফিক না আসে তাহলে আপনি ভালো পরিমাণে ইনকাম করতে পারবেন না বর্তমানে সবচেয়ে ভালো অ্যাডস এর নাম হচ্ছে গুগল এডসেন্স

বিখ্যাত এড নেটওয়ার্ক নিয়ে কাজ করতে হলে আপনাকে ভালো পরিমাণে কনটেন্ট লিখতে হবে আপনি যদি অল্প কিছু টাকা ইনভেস্ট করতে পারেন তাহলে আরো ভাল হবে আপনার অথবা আপনি চাইলে blogger.com যেটি গুগোল এর সাইট এখান থেকে আপনি একদম ফ্রিতে একটি ওয়েবসাইট তৈরি করতে পারবেন এবং এখানে ডোমেইন + হস্টিং একদম ফ্রি তবে তাদের ডোমেইনটি হচ্ছে সাবডোমেইন এখানে যদি আপনি নিজে একটি ডোমেইন কিনে এড করেন তাহলে আরো ভালো হয় কারণ ব্লগস্পট সাবডোমেইন কি গুগলের খুব ভালো ব্যাংক করবে না এবং ওয়েবসাইটের নাম তো অনেক বড় দেখাবে যদি আপনি একটি ডটকম ডোমেইন অথবা এক্সওয়াইজেড ডোমেইন কিনে সাইট তৈরি করতে পারেন তাহলে খুব ভালো রান করবে গুগোল এ

ডোমেইন এবং হোস্টিং কেনার আগে যে যে বিষয়গুলোর উপর লক্ষ্য রাখবেন

অবশ্যই ডোমেইন এবং হোস্টিং কেনার আগে সেই কোম্পানির কিছু দিবেন যাতে ডোমেইন হোস্টিং কেনার পর আপনি কোন সমস্যায় না পড়েন বর্তমানে অনেক কোম্পানি আছে যেগুলো ডোমেইন হোস্টিং কেনার পর ভালোভাবে সার্ভিস দেয় না এবং হোস্টিং খুব স্লো হয়ে যায় যার কারনে আপনার ওয়েবসাইটে লোডিং টাইম অনেক হয়ে যায় এবং ইউসারদের সমস্যা হয় তাই ডোমেইন অথবা হোস্টিং কেনার আগে ফেসবুক দেখতে পারবেন অনেক ওয়েবসাইটের গ্রুপ আছে সেখানে রিভিউ নিবেন কোন কোম্পানি ভালো খুব বেশি টাকা খরচ পড়বে না

কি কি শিখতে হবে ওয়েবসাইট তৈরি করার জন্য?

আপনি যদি একজন প্রফেশনাল ওয়েবসাইট তৈরি করতে শিখতে চান তাহলে আপনাকে আগে শিখতে হবে কোডিং তবে আপনি যদি এডসেন্স নিয়ে কাজ করেন তাহলে আপনাকে কোডিং শিখতে হবে না আপনি থিম ব্যবহার করতে পারেন অন্য কারো দিন নিজের ওয়েবসাইটে ব্যবহার করতে পারেন এবং ফ্রি আর আপনি যদি চান তাহলে আমি প্রথম থেকে কোডিং সহ শিখতে পারেন কোডিং শিখতে আপনি ইউটিউব চ্যানেল বা কোর্স করতে পারেন

এইচটিএমএল পিএসপি জাভাস্ক্রিপ্ট সিএসএস বোরটস্টার্ব আরো বিভিন্ন কোডিং রয়েছে

আর যদি আপনি ওয়ার্ডপ্রেস থেকে ওয়েবসাইট তৈরি করেন তাহলে আপনাকে ডোমেইন এবং হোস্টিং কিনতে হবে ওয়েবসাইট তৈরি করার পর নিয়মিত সেখানে আর্টিকেল পাবলিশ করবেন এবং গুগলে ভালোভাবে এসিও করে নেবেন তাহলে আপনার আর্টিকেল গুলি পাবলিশ করার পর গুগলে ইনডেক্স হয়ে যাবে

কন্টেন্ট রাইটিং কাকে বলে? কি ভাবে নিজেই প্রফেশনাল কনটেন্ট রাইটার হবেন?

কন্টেন বলতে বোঝাচ্ছে এখানে আপনার অনেক ধরনের কনটেন্ট থাকতে পারে যেমন ভিডিও কনটেন্ট ভিডিও তৈরি করা ওয়েবসাইটের জন্য হচ্ছে আর্টিকেল আপনার যেকোন কাজে ভালো ধরনের চেষ্টা করলে তাহলে আপনি সফল হতে পারবেন কনটেন্ট রাইটিং এর জন্য আপনাকে সর্বপ্রথম এরপর রিচার্জ করতে হবে যে কোন বিষয়টির ওপর এ কনটেন্ট লিখলে সেই কোনটি ভালোভাবে ব্যাংক করবে এবং কোনটি বর্তমানে মানুষ বেশি পছন্দ করতেছে না গুগলে সার্চ করতেছে সেটা নিয়ে আপনাকে রিচার্জ করতে হবে আপনি টুলস অথবা ফ্রী টুলস গুগল ওয়েবমাস্টার দিয়ে দেখতে পারেন

একটি কন্টেন লেখার সময় কনটেন্টের কয়েকটি দিক দেখবেন যেমন কনটেন্টটিতে কিছু কিছু ওয়ার্ড এ কোড ইউজ করবেন এইচটিএমএল কোড যেটি দ্বারা লেখা বড় এবং ছোট করবেন লেখার মধ্যে গাড দিবেন
যাতে করে আপনার কোন কনটেন্ট অন্য কেউ ভালোভাবে বুঝতে পারে এবং আপনি কনটেন্টটিতে সবকিছু ভালোভাবে বুঝিয়ে দিবেন এবং সবসময় চেষ্টা করবেন বড় বড় ধরনের কন্টেন লিখার কারণ আপনি যদি ছোট মানের কনটেন্ট গুগলে ভালোভাবে রেঙ্ক করবেনা এবং পোস্টটিতে ভালোভাবে ট্যাগ ডেসক্রিপশন পোস্ট এর মাঝে ট্যাগ ইউজ করবেন তাহলে সেটি গুগলে ভালোভাবে ব্যাংক করবে এভাবে আপনি একজন প্রফেশনাল রাইটার হয়ে যাবেন সর্বপ্রথম আপনাকে যেটা শিক্ষা বিসাস আপনি যে বিষয়টির উপর একটু ভালো বুঝেন সেটার উপরে গুগলে ভালোভাবে রিচার্স
করবেন

আপনি যদি একজন প্রফেশনাল কনটেন্ট রাইটার হতে চান তাহলে কোন সময় ভুল করেও অন্যের কন্টেন চুরি করবেন না বা কপি করবেন না তাহলে আপনি কোনদিন ওয়েবসাইট বা যে কোন কাজে সফল হতে পারবেন না সবকিছু নিজের চেষ্টা করবেন যতটুকু পারেন উদাহরণ হিসেবে আমি নিজেই বলি আমি যখন প্রথম ব্লগিং শুরু করি তখন আমি কিছুই বুঝতাম না ছোট ছোট কন্ঠেন্ট লিখতাম এবং ভালোভাবে এসিও করতে পারতাম না যার কারণে আমার কন্টেন্ট গুলো গুগলে ভালোভাবে ব্যাংক করত না আস্তে আস্তে সবকিছু শিখে এখন আশা করি আমার কনটেন্ট গুলো ভালো হয়

ফটো এসইও কিভাবে করে?

ফটো এসইও বলতে বুঝাচ্ছি এখানে আপনি যখন একটা আর্টিকেল লিখবেন সেখানে অবশ্যই
ফটো অ্যাড করতে হবে এবং সে ফটোটি অবশ্যই অরজিনাল হতে হবে যদি আপনি ফটোটি অন্য কোন জায়গা থেকে নিয়ে থাকেন তাহলে কতটা অবশ্যই ভালোভাবে এডিট করে দিবেন এবং আপনি যদি ব্লগারে ওয়েবসাইট তৈরি করেন সেক্ষেত্রে আপনাকে যে ফটোটি সেখানে দিবেন থাম্বেল অথবা পোস্টের ভিতরে অবশ্যই ফটোটির 100kb এর নিচে থাকতে হবে এর বেশি যদি হয় তাহলে আপনার ব্লগার এর স্পিড খুব কমে যাবে অনেকেই হয়তো এ বিষয়টি জানেনা ব্লগার এক্ষেত্রে করা বাধ্যতামূলক তা না হলে আপনার ওয়েবসাইটে স্পিড একেবারেই কমে যাবে আর যদি ওয়ার্ডপ্রেস হয় তাহলে আপনি কিছু প্লাগিন ইউজ করতে পারেন যেগুলো দ্বারা আপনার ওয়েবসাইটের স্পিড কমবেনা ফটো থাকে তারপরও স্পিড ভালো থাকবে যেমন রয়েছে

Wp Rocket

এই ধরনের আরও কিছু প্লাগিন রয়েছে ফটো কাস্টমাইজ করার জন্য

ওয়েবসাইট এর ভিতরে কি কি পেজ থাকা জরুলি?

কিছু কিছু পেইজ রয়েছে যে পেজ গুলো ওয়েবসাইটে অ্যাড না করলে আপনার ওয়েবসাইটটি অবৈধভাবে ধরা হবে যেমন

About
Contact
Privacy policy
এবং ওয়েব সাইটের কনটেন্ট গুলি নিরাপদ রাখার জন্য আপনি এ পেজ ইউজ করবেন
DMCA

এতে করে আপনার কনটেন্ট অন্য কেউ নিতে পারবে না এবং ওপরের পেজগুলোতে ভালো মানের কনটেন্ট লিখে দিবেন আশা করি বুঝতে পারছেন তো আজকে এই পর্যন্তই দেখা হবে অন্য কোন পোষ্টে ততক্ষণ সবাই ভাল থাকুন সুস্থ থাকুন আমাদের সাথে থাকুন ধন্যবাদ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button